তোমার জীবনে আমি

সর্বশেষ

তোমার ঘুম ভাংগাইনি আমি
ছিলাম না তোমার ছোটবেলার সাথী
আমার সাথে নেই তোমার
শৈশব কৈশোরের কোনো স্মৃতি
তোমার প্রথম যৌবনের দীপ্ত কামনায়
ছিলাম না আমি, আমার জন্য
কখনো কোনো পংক্তি রচিত হয়নি
তোমার হাতে
আমার কল্পনায় তুমি হওনি উন্মনা
কোন নীরব আকুল ক্ষণে
তোমার পূজার বেদিতে নিভৃত নিবেদনে
গাঁথামালা সমর্পণে ছিলাম না আমি
তোমার সাহচর্য, কামনা সঙ্গ-তৃষা
মেটেনি আমাকে দিয়ে কোনোদিন এতটুকু
তোমার চাওয়ার জগতে যত প্রাপ্তি
তাতে কোনো অংশ নেই আমার
তোমার ভুবনে তুমি সুখী
সুন্দর জীবনে তৃপ্ত
তোমার পরিত্যক্ত বাগানে আমি এক নিভৃতচারী
তুচ্ছ পূজারী
তোমার মধ্য যৌবনের এ পড়ন্ত বেলায়
আমি এক মুগ্ধ দর্শক শুধু
হেঁটে যাওয়ার পরে সমুদ্র তটের পদচিহ্নের মতো
যার চলার নিদর্শন মুছে যায় হারায় ক্ষণ পরে চিরতরে
তোমার জীবনে আমি তেমনি শূন্য অতীত
সম্ভাবনাহীন ভবিষ্যতের ফুরিয়ে যাওয়া এক
ক্ষণিক স্মৃতি…!

[প্রকৃত রচনাকাল: ২২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৭ ।। চবি]

ফেসবুক লিংক

একটি মন্তব্য লিখুন

প্লিজ, আপনার মন্তব্য লিখুন!
প্লিজ, এখানে আপনার নাম লিখুন

নিজেকে একজন জীবনবাদী সমাজকর্মী হিসেবে পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিলসফি পড়িয়ে জীবিকা নির্বাহ করি। গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম। থাকি চবি ক্যাম্পাসে। নিশিদিন এক অনাবিল ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখি। তাই, স্বপ্নের ফেরি করে বেড়াই। বর্তমানে বেঁচে থাকা এক ভবিষ্যতের নাগরিক।

সম্প্রতি জনপ্রিয়

আরো পড়ুন

ভালোবাসা বিহনে

ভালোবাসা বিহনে পড়া থাকে না মনে, ভাল লাগে না কিছু। থাকতো যদি কেউ পাশে, রাখতো বেঁধে আমাকে উষ্ণতা দিয়ে জড়িয়ে সারাদিন। কথা ছিল আজ পড়ব একটানা, অথচ ছুঁয়ে দেখিনি বই, ডুবে গেল বেলা। প্রিয়...

বেঁচে থাকার এক অসীম আকুতি নেশার মত পেয়ে বসেছে আমাকে

কত হাসি, কত গান, কত কথা, না বলা ব্যথা, কত অভিমান; জীবনটা এত সুন্দর, এত অপার্থিব, এত আনন্দময়। যদি মানুষ না হতাম, অথবা না হতাম...

একজন বিপ্লবীর আত্মপ্রতিকৃতি

বুদ্ধিজীবী হতে চাইনে, হতে চাই চালচুলোহীন বিপ্লবী। জ্বলে উঠতে চাই প্রতিবাদের প্রবল বহ্নি হয়ে। ধ্বংস করে দিতে চাই অসত্যের সকল নির্মাণ। সত্য আর ন্যায়ের পথে হতে চাই...